মুশফিকুরের ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানো ব্যাটটি নিলামে লক্ষ টাকায় কিনেছেন শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশন।

বাংলাদেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। কমিউনিটি ট্রান্সমিশনের কারণে ভাইরাসের গতিরোধ করা অনেকটাই অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে আক্রান্তদের চিকিৎসা ও ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের জন্য প্রয়োজন বড় অঙ্কের অর্থ সহায়তা।

সেই ভাবনা থেকেই নিজের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির ব্যাট নিলামে তুলেছিলেন মুশফিকুর রহিম। জাতীয় দলের অধিনায়ক থাকাকালে ২০১৩ সালে দেশের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন মুশফিক। গল টেস্টের সেই ইনিংসে মুশফিক যে ব্যাট দিয়ে কিনেছিলেন, তা তোলা হয়েছিল নিলামে। সেই ব্যাট কিনে নিয়েছে পাকিস্তানি ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদির গড়া শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশন।

ভুয়া বিডিংয়ের কারণে কিছুটা ঝক্কি-ঝামেলা পোহাতে হলেও ব্যাটটির নিলাম সম্পন্ন হয়েছে। প্রায় ১৭ লাখ (১৬ লাখ ৮০ হাজার) টাকায় ব্যাটটি বিক্রি হয়েছে নিলামে, যার ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছিল ৬ লাখ টাকা। গত ১০ মে রাতে মুশফিকের ব্যাটের নিলাম শুরু হয়। ব্যাট বিক্রির পুরো অর্থই করোনাভাইরাস মোকাবেলায় কাজে খরচ করা হবে।

ছয় লাখ টাকা ভিত্তিমূল্য দিয়ে ৯ মে রাতে নিলামে তোলা হয় ব্যাটটি। বুধবার এর দাম অর্ধকোটি ছাড়ায়! অবশ্য বিডিংয়ে প্রচুর ভুয়া কল আসার ঘটনা ঘটছে বলেও জানিয়েছিল আয়োজক কর্তৃপক্ষ। বাধ্য হয়ে বিডিং প্রক্রিয়া কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ রাখতেও বাধ্য হয় তারা।

২০১৩ সালে গলে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলেছিলেন ঠিক ২০০ রানের ইনিংস, যা ছিল দেশের ইতিহাসে টেস্টে প্রথম কোনো ব্যাটসম্যানের ডাবল সেঞ্চুরি স্পর্শের নজির।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের টেস্ট ইতিহাসের এখন পর্যন্ত পাঁচটি ডাবল সেঞ্চুরির তিনটিই মুশফিকের দখলে! তার অপর দুটি ডাবল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে।

নিলামে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানো ব্যাটে ভালো সাড়া পেলে সংগ্রহে থাকা আরও কিছু স্মারক নিলামে তুলতে চান মুশফিক।