চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের মাসব্যাপী বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন

মোহাম্মদ হাসানঃ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে সারা দেশে তিন মাসব্যাপী গাছ রোপণ করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।
‘মুজিবর্ষের আহ্বান, ৩টি করে গাছ লাগান’ স্লোগানকে সামনে রেখে সবাইকে অংশগ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি নেতাকর্মী আগামী তিন মাসের (আষাঢ়, শ্রাবণ ও ভাদ্র) মধ্যে কমপক্ষে তিনটি (বনজ, ফলদ ও ভেষজ) বৃক্ষরোপণ করবেন।
কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ ৭ জুলাই মঙ্গলবার সকালে হাটাজারি উপজেলায় চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।
এসময় ছাত্রলীগ নেতা কর্মীদের মাঝে চারা বিতরণের মধ্যদিয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তানভীর হোসেন তপু ও সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম। উপস্থিত ছিলেন হাটাজারি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুর রহমান রাসেল ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ হাসান সহ নেতৃবৃন্দ।
উদ্বোধনী বক্তব্যে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি তানভীর হোসেন তপু বলেন, শিক্ষা, শান্তি ও প্রগতির পতাকাবাহী সংগঠন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের অভিভাবক বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মী যেকোনো দুর্যোগ ক্রান্তিলগ্নে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে।
তিনি আরো বলেন, সৃষ্টির বুকে প্রাণিকূলের বেঁচে থাকার পেছনে বৃক্ষের রয়েছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। বৃক্ষ মূলত পরিবেশ, আবহাওয়া ও জলবায়ুর ভারসাম্য বজায় রাখে। বন্যা, খরা, ঝড়, টর্নেডো, জলোচ্ছ্বাস, ওজনস্তর ক্ষয়, ভূমিক্ষয়, জলবায়ু পরিবর্তন, শব্দদূষণ, মাটিদূষণ, পানিদূষণ, বায়ুদূষণ প্রতিরোধ করে। এক কথায় প্রকৃতির অমূল্য ও প্রধান সম্পদ হচ্ছে বৃক্ষ। পৃথিবীকে বসবাসের উপযোগী করতে ও প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের করাল গ্রাস থেকে দেশকে রক্ষা করতে বৃক্ষরোপণের কোনো বিকল্প নেই। তাই বৃক্ষরোপণ কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আশপাশে, উঁচু-নিচু পতিত জমি, রাস্তার পাশে, নদীর পাড়ে গাছ লাগানো অতীব গুরুত্বপূর্ণ।
মুজিববর্ষ উদযাপনের অনুষঙ্গ হিসেবে ১ কোটি বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। যার উদ্বোধন করবেন বঙ্গবন্ধু কন্যা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উক্ত কর্মসূচিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে গড়া সংগঠন হিসেবে এবং শেখ হাসিনার নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সর্বোচ্চ ভূমিকা রাখবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।