রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ৫


শাহীন রাসেল, কক্সবাজার: কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের দুই গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

রোববার (৩০ আগস্ট) বেলা ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত এ সংঘর্ষে অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন। এছাড়া ৩ জন প্রতিপক্ষ গ্রুপের হাতে অপহরণের শিকার হয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে।
কুতুপালং ক্যাম্পের রোহিঙ্গা নেতা নুর বশর জানান, দীর্ঘদিন ধরে রেজিস্টার্ড ও আনরেজিস্টার্ড ক্যাম্পের দুই গ্রুপের মধ্যে চাঁদাবাজি, অপহরণ, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। গত বুধবার থেকে দফায় দফায় গুলাগুলি ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সর্বশেষ রোববার লম্বাশিয়া মাস্টার মুন্না এবং হাফেজ জাবের ও সাইফু্র গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে মুন্না গ্রুপের ৫ জন আহত এবং ৩ জন অপহরণ হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। তবে তাৎক্ষণিক তাদের নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি৷ আহতদের কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে ওই রোহিঙ্গা নেতা জানান।
এর আগে শনিবার সংঘর্ষের ঘটনায় নারীসহ ৩ জন আহত হয়েছে। এ সময় দায়ের কোপে আহত ২ নারীকে কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আর গুলিবিদ্ধ নুর আলমকে প্রথমে কক্সবাজার পরে চট্টগ্রাম হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। সে কুতুপালং টু-ইস্ট ক্যাম্পের আহমদ হোসেনের ছেলে। তার অবস্থা আশংকাজনক বলে সূত্র জানিয়েছে।
কুতুপালং ক্যাম্প ইনচার্জ মো. খলিলুর রহমান খানের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ছুটিতে রয়েছেন বলে ফোন কেটে দেন।