মাশরাফির ব্রেসলেট বিক্রি হলো ৪২ লাখ টাকায়

0

 

মাশরাফি বিন মর্তুজার দীর্ঘদিনের সাথী তার হাতের ব্রেসলেটের ভিত্তিমূল্য ছিল ৫ লাখ টাকা। গ্রামীণ ফোন এবং দুটি বেসরকারি ব্যাংক কিনতে চেয়েছিল তার ব্যবহৃত ব্রেসলেটটি। কিন্তু অকশন ফর অ্যাকশনের মাধ্যমে নিলামে তোলা হয়েছিল ব্রেসলেটটি।

রোববার (১৭ মে) রাত সাড়ে ৯টায় শুরু হয় ব্রেসলেটের নিলাম। সেখানেই আগ্রহীরা ঝাঁপিয়ে পড়েছেন মাশরাফির ব্রেসলেট কিনতে।

শেষ পর্যন্ত মাশরাফির ব্রেসলেটটি বিক্রি হলো অবিশ্বাস্য দামে। ৪২ লাখ টাকায় সেই ব্র্রেসলেটটি কিনে নিয়েছেন বাংলাদেশের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন বাংলাদেশ লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স কোম্পানি অ্যাসোসিয়েশন (বিএলএফসিএ )। তাদের পক্ষে নিলামে অংশ নেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান মোমিনুল ইসলাম। তিনি আবার আইপিডিসি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর।

প্রথমে সঞ্চালক আরিফ আর হোসেন ঘোষণা দেন, ৪০ লাখ টাকায় সর্বশেষ বিডকারী প্রতিষ্ঠান বিএলএফসিএর পক্ষ থেকে মোমিনুল ইসলাম করেছেন। সুতরাং, ৪০ লাখ টাকাতেই বিক্রি হলো মাশরাফির এই ব্রেসলেট। কিন্তু অতিরিক্ত ২ লাখ টাকা আসলো কোত্থেকে? সেটাই জানিয়েছেন বিএলএফসিএ’র চেয়ারম্যান।

নিলাম অনুষ্ঠানে এসে মোমিনুল ইসলাম বলেন, ‘থ্যাঙ্কইউ মাশরাফি ভাই। আপনি এ দেশকে যে সম্মান এনে দিয়েছেন, সে সম্মানের প্রতিদান কোনোভাবেই হয় না। বাট এইটুকু করে (নিলামে অংশ নিয়ে) হলেও আমরা চেষ্টা করেছি আপনাকে একটুখানি হলেও সম্মান দিতে। গতকাল রাতে (শেনিবার রাতে) আমাকে আরিফ আর হোসেন কল দিয়ে বলেছিল, ম্যাশ ভাইয়ের একটা অকশন আছে, আপনাকে থাকতে হবে। তখন আমি ওকে কিছু বলিনি। সঙ্গে সঙ্গে আমাদের যত সিইও আছে সবাইকে মেসেজ দিয়েছি। সবাই একবাক্যে রাজি হয়ে গেলো। সবাই একটা বিষয় বলেছে যে, একটা ভালো কিছুতে যদি ব্যায় হয়, বাংলাদেশের ক্যাপ্টেনকে যদি একটা সম্মান দেখানো যায়, আর্থিক খাতে এর থেকে আর বালো কিছু হয় না। এই ব্রেসলেটটা হলো একটি স্যুভেনির। এটার দাম কোনোভাবেই হয় না। এটা অমূল্য। আমরা খুব খুশি যে, ৪০ লাখ টাকায় আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর অ্যাসোসিয়েশন থেকে বিড করেছি।’

বাড়তি দুই লাখের বিষয়ে মোমিনুল ইসলাম বলেন, ‘আইপিডিসির সঙ্গে অকশন ফর অ্যাকশনের একটা সমঝোতা আছে। ১০টা আইটেম পর্যন্ত আমরা ৫ পারসেন্ট করে এডিশনাল দেবো। সুতরাং, ৪০ লাখের সঙ্গে আরও ৫ পার্সেন্ট ২ লাখ। মোট ৪২ লাখ টাকায় এই ব্রেসলেটটা কিনতে চাচ্ছি।’

সঙ্গে সঙ্গে মাশরাফি হাতের ব্রেসলেট খুলে বলেন, এই যে এটা আপনার জন্য এই মুহূর্তে খুলে রেখে দিলাম। সে সঙ্গে বিএলএফসিএকে ধন্যবাদ জানিয়ে মোমিনুল ইসলামকে তিনি বলেন, ‘আপনাকে এবং আপনার সঙ্গে আরো যারা আছে, সবাইকে আমার অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে ধন্যবাদ।’

নিলাম সঞ্চালক আরিফ আর হোসাইন সর্বশেষ জানিয়েছেন, বিএলএফসিএ সোমবার ১২টার মধ্যেই ৪২ লাখ টাকার পুরো ফান্ড ট্রান্সফার করে দেবে। এরই মধ্যে তারা অ্যাকাউন্ট নাম্বার চেয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here